কানাডার সংবাদ

কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর স্ত্রী সোফি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত!

কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর স্ত্রী সোফি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত!  ।। বিশ্বব্যাপী ছড়িয়েপড়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের হানা এবার পড়ছে   কানাডার প্রধানমন্ত্রীর ঘরে। স্ত্রী সোফি ট্রুডোর শরীরে করোনার উপসর্গ পাওয়া গেছে।   স্বেচ্ছায় আইসোলেশনে গেলেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো।কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর স্ত্রী সোফি গ্রেগরি ট্রুডো করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত! টেস্টের ফল প্রকাশ! জাস্টিন নিজেকে সেলফ-আইসোলেশনে রেখেছেন।  সারা কানাডায় আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে।

করোনা ভাইরাসের কারণে কানাডা জীবনযাত্রা স্থবির হয়ে পড়ছে।  কানাডার প্রতিটি শহরে শহরে গ্রোসারী আর ফার্মেসী স্টোরগুলোতে মানুষের ঢল নেমেছে। সবাই পরিবার পরিজনদের জন্য আগাম প্রস্তুতি নিয়ে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি সংগ্রহে রাখার চেষ্টা করছেন। কিন্তু বাজার থেকে ইতোমধ্যে অনেক নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিস শেষ হয়ে গেছে। হেন্ড স্যানিটাইজার, মাস্ক অনেকদিন হয় বাজারে নেই। গতকাল থেকে টয়লেট পেপারসহ অনেক নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি ষ্টোরগুলোতে নেই।  কানাডার অধিকাংশ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এ রিপোর্ট  লেখা পর্যন্ত বেশ কয়েকটি স্কুল বোর্ডে সভা চলছে পরবর্তী সিদ্ধান্তের জন্য। মসজিদগুলোতে শুক্রবারের জুম্মার নামাজে না যাওয়ার অনুরোধ করা হয়েছে বিভিন্ন শহরে। সকল মসজিদে অনির্দিষ্টকালের জন্য জুমার নামাজ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সম্প্রতি যুক্তরাজ্য থেকে ফেরার পর সোফি ট্রুডোর শরীরে করোনাভাইরাসের উপসর্গ দেখা দেয়। এরপর দেশটির স্থানীয় সময় বুধবার তিনি চিকিৎসকের কাছে গিয়ে পরীক্ষা করান। তারপর তাকে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়।

এদিকে স্ত্রীর করোনাভাইরাসের উপসর্গ চিহ্নিত হওয়ার পর স্বেচ্ছায় আইসোলেশনে যান ট্রুডো। বর্তমানে তিনি তার বাসভবনেই অবস্থান করছেন। এ কারণে দেশটির স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার অটোয়ায় অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া মন্ত্রীসভার বৈঠকও বাতিল করেছেন তিনি।

কানাডার প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে এক বার্তায় বলা হয়, প্রধানমন্ত্রীর শরীরে করোনাভাইরাসের কোনো লক্ষণ পাওয়া যায়নি। তবে সতর্কতা স্বরুপ তিনি স্বেচ্ছায় আইসোলেশনে অবস্থান করছেন।

ওই বার্তায় আরও বলা হয়, এই সময় বাসভবন থেকেই সব ব্রিফিং, ফোনকল ও ভার্চুয়াল বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন ট্রুডো। আগামীকাল জাতির উদ্দেশে বক্তব্য রাখবেন কানাডার প্রধান মন্ত্রী জাস্টিন ট্রোডাে।  করোনা ভাইরাসের কারণে সারা কানাডায় ব্যবসাবানিজ্যে পতন ঘটেছে, শুধু গ্রোসারী  আর সুপার মার্কেটগুলোতে মানুষের ঢল নেমেছে।  মানুষের  মধ্যে এক অজানা শংকা আর আতঙ্ক বিরাজ করছে। দেশের সব ধরনের সভা সমাবেশ এমন কি পারিবারিক বড় অনুষ্ঠানগুলোও স্থগিত করা হয়েছে। সবার চোখে মুখে আতঙ্কের পাশাপাশি একই প্রশ্ন কি হতে চলছে বিশ্বে! ব্যবসা-বানিজ্যে ধ্বস নেমেছে।  সোশ্যাল মিডিয়ায় শুধুই করোনা ভাইরাসের রকমারি সংবাদ আর স্ট্যাটাস ভাইরাল হচ্ছে। কানাডার বড় বড় ইভেন্ট, হকি, ক্যাসিন্যু, সব ধরনের সমাবেশ নিষিদ্ধ ।

 

cbna24-7th-anniversary
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.

19 + 4 =