ফিচার্ড বিশ্ব

আফগান হেরোইন বন্যার পানির মত ছড়িয়ে পড়ছে বিশ্ববাজারে

আফগান হেরোইন বন্যার পানির মত ছড়িয়ে পড়ছে বিশ্ববাজারে

গত ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান দখল করে তালেবান। নতুন করে শুরু হয় তালেবান যুগের। তারপর থেকেই আশঙ্কিত গোটা বিশ্ব। বিশ্বের সবচেয়ে বেশি আফিম তৈরি হয় আফগানিস্তানে। আর সেই থেকেই তৈরি হয় হেরোইন। ইউরোপ, আমেরিকা ও এশিয়ার বাজারে বিপুল চাহিদা রয়েছে এই নিষিদ্ধ মাদকের। আর তালেবান ক্ষমতায় আসার পর নতুন মাত্রা পেয়েছে মাদক ব্যবসা।

গোটা বিশ্বে বন্যার পানির মত ছড়িয়ে পড়ছে আফগান আফিম, জন্ম দিচ্ছে মাদক সন্ত্রাসের।

যা নিয়ে চিন্তিত বিশ্বনেতারা, বিশেষ করে এই মাদক বিশ্বের শান্তিকে হুমকির মুখে ফেলতে পারে। আফগানিস্তানে তৈরি হওয়া আফিম থেকে পাকিস্তানে ল্যাবরেটরিতে বিশাল পরিমাণের হেরোইন তৈরি হচ্ছে এবং তা ইউরোপের বাজারে পৌঁছে যাচ্ছে।

আফগানিস্তানে তৈরি হওয়া মাদকের ৪০ শতাংশ পাচার হয় পাকিস্তানের মধ্যে দিয়ে। দ্য ওয়াশিংটন পোস্টের সাংবাদিক হামিদ মীর লিখছেন, আফগান মাদক ব্যবসার অন্যতম মাধ্যম হল পাকিস্তান। সম্প্রতি এই বিষয়ে এক রিপোর্ট পেশ করেছে ‘ইউরোপিয়ান ফাউন্ডেশন ফর সাউথ এশিয়ান স্টাডিস’ (EFSAS )। ওই রিপোর্টে বলা হয়েছে, বিশ্বের ৮৭ শতাংশ আফিম তৈরি হয় আফগানিস্তানে।

প্রায় দুই দশক ধরে প্রায় ৯ বিলিয়ন ডলার খরচ করেও সেদেশে আফিম চাষে লাগাম টানতে সক্ষম হয়নি আমেরিকা। ইএফএসএ-র রিপোর্টে বলা হয়েছে, ক্ষমতায় এসে আফিম চাষে লাগাম টানার কথা ঘোষণা করেছিল তালেবানের মুখপাত্র জাবিউল্লা মুজাহিদ। কিন্তু সেসব আন্তর্জাতিক ত্রাণ পাওয়ার জন্য শুধুমাত্র লোক দেখানো প্রতিশ্রুতি ছিল। গ্লোবাল ইনিশিয়েটিভ এগেইনস্ট ট্রান্সিশনাল অর্গানাইজড ক্রাইম জানাচ্ছে- এই মুহূর্তে আফগানিস্তানে বিদেশী ফান্ড আসা বন্ধ। তাই দেশের ধুঁকতে থাকা অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে এখন মাদক ব্যবসার ওপর জোর দিয়েছে তালেবানরা।

এ প্রসঙ্গে আমেরিকার দূত জন গডফ্রে আফ্রিকার বর্ণনা করেছেন। তিনি বলছেন, মোজাম্বিকে মাদক সন্ত্রাস এবং সেই সঙ্গে সন্ত্রাসে মদত দেয়ার জন্য অর্থের অফুরান যোগান পরিস্থিতিকে আরো খারাপ দিকে নিয়ে যাচ্ছে। এদের সঙ্গে আবার যোগ রয়েছে আল সুন্নাহ ওয়া জামা-র (ASWJ) মত বিদেশী জঙ্গি সংগঠনের। যারা অর্থের যোগান দিয়ে যাচ্ছে মাদক সন্ত্রাসে। ন্যাটোর কমান্ডার ড্যান ম্যাকনিল বলছেন, যখন আফগানিস্তানের বুকে লম্বা লম্বা আফিম ক্ষেত দেখি তখন আমার চোখের সামনে ভেসে ওঠে রাশি রাশি টাকা। যা যোগান দিচ্ছে IED, AK এবং RPG-এর মত মারণাস্ত্রের। ‘ইউরোপিয়ান ফাউন্ডেশন ফর সাউথ এশিয়ান স্টাডিস’ (EFSAS ) অবিলম্বে আন্তর্জাতিক গোষ্ঠীকে আফগান আফিমের ঢালাও ব্যবসাতে লাগাম পরানোর বিষয়ে নজর দিতে বলেছে, নাহলে আগামীদিনে মাদক সন্ত্রাস গোটা বিশ্বকে গ্রাস করবে বলে আশংকিত তারা।

সূত্র: এএনআই


সর্বশেষ সংবাদ

দেশ-বিদেশের টাটকা খবর আর অন্যান্য সংবাদপত্র পড়তে হলে CBNA24.com

সুন্দর সুন্দর ভিডিও দেখতে হলে প্লিজ আমাদের চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

আমাদের ফেসবুক পেজ   https://www.facebook.com/deshdiganta.cbna24 লাইক দিন এবং অভিমত জানান

আপনার মতামত দিন