বিশ্ব

ফ্রান্সে ছুরি হামলা : নিহত ২

ফ্রান্সে ছুরি হামলা : হামলাকারীসহ নিহত ২

ফ্রান্সে ভিলেজুফি শহরে এক ব্যক্তির এলোপাতাড়ি ছুরি হামলায় একজন নিহত ও চারজন আহত হয়েছেন। পরবর্তীতে পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছেন হামলাকারীও।

শুক্রবার রাজধানী প্যারিস থেকে ৭ কিলোমিটার দূরে ভিলেজুফি নামক এলাকায় একটি পার্কে স্থানীয় সময় দুপুর ২টায় এই ঘটনা ঘটেছে। ছুটির দিন থাকায় এ সময়ে  হাউতেস-বুয়েরিস পার্কটি পরিবার এবং শিশুদের দ্বারা কোলাহল মুখর ছিল। ভিড়ের মধ্যে পার্কে এই হামলার ঘটনা ঘটে।

আহতদের মধ্যে দুই জনের অবস্থা গুরুতর বলে জানা গেছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সুসাইড ভেস্ট পরে স্থানীয় পার্কে পথচারীদের ওপর ছুরি দিয়ে অতর্কিত হামলা চালায় ওই হামলাকারী, সে বেশ কয়েকজনে ছুরি দিয়ে আঘাত করে। এসময় পথচারীদের চিৎকারে ঘটনাস্থলে দ্রুত পুলিশ উপস্থিত হয়।

পুলিশ জানিয়েছে, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে গুলি চালাতে বাধ্য হয় তারা। আর তাদের ছোড়া গুলিতে ওই হামলাকারীর মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় আহতরা এখন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। ঘটনাস্থলে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।

ভিলিজুয়েফের মেয়র ফ্রাঙ্ক লে বোহেলিক জানিয়েছেন, নিহত ব্যক্তি একজন ৫৬ বছর বয়সী। তিনি সেখানকার বাসিন্দা। যে তার স্ত্রীকে নিয়ে পার্কে বেড়াতে বেড়াচ্ছিলেন। একটি টুইট বার্তায় মেয়র, ভুক্তভোগীর পরিবার এবং প্রিয়জনকে আন্তরিক সমবেদনা জানান।

আরও পড়ুনঃ দিল্লির সহিংসতায় বাংলাদেশিরা!

হামলার দুই ঘণ্টার মধ্যেই ফ্রান্সের উপ-স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী লরেন্ট নুয়েজ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

পুলিশ ইউনিয়নের মুখপাত্র লৌক ট্র্যাভারস বলেন, এটি কোনও সন্ত্রাসী কাজ ছিল কিনা, তা এখনো নিশ্চিত বলা যাচ্ছে না। আক্রমণকারীর পরিচয় জানা যায়নি। আপাতত বিষয়টিকে ফৌজদারি অপরাধ হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে। মামলাটি সন্ত্রাসবাদ বিরোধী আদালতে পাঠানো হয়নি।

যদিও প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে বেশ কয়েকটি ফরাসি সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, ছুরি নিয়ে হামলাকারী বিস্ফোরক বোঝাই জ্যাকেট পরে ছিল। যে কারণে এ দিনের হামলার সঙ্গে সন্ত্রাসবাদী যোগ একেবারে উড়িয়ে দেয়া হচ্ছে না

হামলার পরে গোটা এলাকা ঘিরে রেখেছে নিরাপত্তারক্ষী বাহিনী। স্থানীয়দের ওই এলাকা এড়িয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। তদন্তকারীদের ধারণা, এ দিনের হামলার ঘটনায় একাধিক ব্যক্তি জড়িত থাকতে পারে। যে কারণে বিশেষ সতর্কতা অবলম্বন করা হচ্ছে। এ ঘটনায় স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়েছে।

ভিলেজুফ শহরের মেয়র ভিনসেন্ট জিয়ানব্রান জানিয়েছেন, গোটা ঘটনায় সাধারণ মানুষ হতভম্ভ এবং আতঙ্কিত। যে কোনও সময় যে কোনও স্থানে এমন ঘটনা ঘটতে পারে বলে সাধারণ মানুষের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়েছে। তবে পুলিশের ভূমিকায় সেখানকার মানুষ খুশি। খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই পুলিশ পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে।

দেশ-বিদেশের টাটকা খবর আর অন্যান্য সংবাদপত্র পড়তে হলে 

সুন্দর সুন্দর ভিডিও দেখতে হলে প্লিজ আমাদের চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

সংবাদটি শেয়ার করুন
cbna24-7th-anniversary

Leave a Reply

Your email address will not be published.

4 + sixteen =