ফিচার্ড বিনোদন

সংরক্ষিত হলো শাহ আবদুল করিমের গান

শাহ্ আব্দুল করিম
বাউল শাহ আবদুল করিম। পুরোনো ছবি

সংরক্ষিত হলো শাহ আবদুল করিমের গান

বাংলার হাওর অঞ্চলের গানকে বিশ্ব দরবারে নিয়ে গেছেন কিংবদন্তি বাউল শাহ আবদুল করিম। ২০০৯ সালের ১২ সেপ্টেম্বর তিনি পাড়ি জমান না ফেরার দেশে। তবে বাউলের জীবদ্দশা থেকেই তার গান গেয়ে বা রিমেক করে দেশ-বিদেশে নাম-অর্থ কুড়িয়েছেন অসংখ্য গায়ক ও সাধারণ মানুষজন। সেই ধারাবাহিকতা এখনো চলছে।

বিপরীতে করিম পরিবার এখনো পড়ে আছে হাওর অঞ্চলের নিভৃতে। তবে এবার শাহ আবদুল করিমের লেখা-সুর করা ৪৭২টি গান বাংলাদেশ কপিরাইট বোর্ডে মালিকানা সংরক্ষিত হয়েছে।

বিষয়টি সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন শাহ আবদুল করিমের একমাত্র ছেলে বাউল শাহ নূর জালাল। তিনি জানান, বাংলাদেশে কপিরাইট অফিসের রেজিস্ট্রার জাফর রাজা চৌধুরীর আগ্রহ আর সংগীতশিল্পী জুয়েল মোর্শেদ ও সারোয়ার শুভর উদ্যোগে এই কাজটি সম্পন্ন হয়েছে।

কপিরাইট অফিসে জুয়েল মোর্শেদ, শাহ নূর জালাল ও জাফর রাজা চৌধুরী


তিনি আরও জানান, শাহ আবদুল করিমের গানের সংখ্যা প্রায় ৭০০। তবে সবগুলো গানের সঠিক পাণ্ডুলিপি বা ট্র্যাক সংগ্রহ করা সম্ভব হয়নি। সে জন্যই ৪৭২টি গান সংরক্ষিত করা হলো। বাকি গানগুলো অনুসন্ধানের কাজ চলছে।

উল্লেখ্য, শাহ আবদুল করিমের জনপ্রিয় গানের মধ্যে রয়েছে ‘বন্দে মায়া লাগাইছে’, ‘কেন পিরিতি বাড়াইলারে বন্ধু ছেড়ে যাইবা যদি’, ‘বসন্ত বাতাসে সই গো’, ‘তুমি মানুষ আমিও মানুষ’, ‘প্রাণে সহে না দুঃখ বলবো কারে’, ‘কোন মেস্তোরি নাও বানাইছে’, ‘ওরে ভব সাগরের নাইয়া’সহ অসংখ্য গান। -সূত্রঃ আমাদেরসময়





সর্বশেষ সংবাদ

দেশ-বিদেশের টাটকা খবর আর অন্যান্য সংবাদপত্র পড়তে হলে CBNA24.com

সুন্দর সুন্দর ভিডিও দেখতে হলে প্লিজ আমাদের চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

আমাদের ফেসবুক পেজ   https://www.facebook.com/deshdiganta.cbna24 লাইক দিন এবং অভিমত জানান

আপনার মতামত দিন