La Belle Province

কানাডা, ১২ আগস্ট ২০২০, বুধবার

বিল গেটসের ব্লগে সমীর-সেঁজুতি

রাজবংশী রায় | ১৫ জানুয়ারী ২০২০, বুধবার, ২:৫৮

স্বাস্থ্য বৈষম্যের বিরুদ্ধে লড়াই

বিল গেটসের ব্লগে সমীর-সেঁজুতি

ঢাকা শিশু হাসপাতালের মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের প্রধান ও অণুজীববিজ্ঞানী অধ্যাপক সমীর সাহা এবং তার মেয়ে ড. সেঁজুতি সাহার ভূয়সী প্রশংসা করেছেন মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস।বিল গেটসের ব্লগে সমীর-সেঁজুতি নিয়ে লিখেছেন- স্বাস্থ্য বৈষম্যের বিরুদ্ধে বাবা-মেয়ের একসঙ্গে লড়াই চালিয়ে যাওয়ার কথা উল্লেখ করে বিল গেটস তার নিজের ব্লগে (গেটস নোটস ডটকম) লিখেছেন, বাবা-মেয়ে বিশ্বব্যাপী স্বাস্থ্যমান উন্নয়নে প্রাণবন্ত টিম হিসেবে কাজ করছে। উচ্চ শিশুমৃত্যুতে ধনী ও দরিদ্র দেশগুলোর মধ্যে যে ব্যবধান ছিল, তা হ্রাসে তারা কাজ করে চলেছেন। এ জন্য তারা সংক্রামক রোগের ভ্যাকসিনের পাশাপাশি তথ্যউপাত্ত ও রোগ নির্ণয়ের অত্যাধুনিক ব্যবস্থাপনা প্রয়োগ করছেন। ভ্যাকসিন নিয়ে তাদের গবেষণার সুফল পাচ্ছে বাংলাদেশের পাশাপাশি দক্ষিণ এশিয়ার অন্যান্য দেশও।

বাংলাদেশে ভ্যাকসিন প্রবর্তনে ড. সমীর সাহার প্রশংসা করে বিল গেটস লিখেছেন, তার প্রতিষ্ঠিত চাইল্ড হেলথ রিসার্চ ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে শিশুদের টিকাদানে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। এ কাজে সরকারের পক্ষ থেকে তাকে জোরালো সহায়তা করা হয়েছে। সরকারের সম্প্রসারিত টিকাদান কর্মসূচির আওতায় দেশে ৫ বছরের কম বয়সী শিশুদের মৃত্যু হ্রাস পেয়েছে। একই সঙ্গে শিশুস্বাস্থ্যের অভাবনীয় উন্নতি হয়েছে। বাংলাদেশের ১৭ কোটি মানুষের প্রায় ৯৮ শতাংশই এখন ভ্যাকসিন সুবিধার আওতায় এসেছে।

দেশে মেনিনজাইটিস ও নিউমোনিয়ার ভ্যাকসিন প্রবর্তনে ড. সমীরের ভূমিকার কথা উল্লেখ করে বিল গেটস লিখেছেন, এ দুটি রোগ ছিল বাংলাদেশে শিশুমৃত্যুর বড় কারণ। এই রোগের ভ্যাকসিন আমেরিকার মতো ধনী দেশগুলোতে সহজলভ্য হলেও বাংলাদেশে ছিল দুর্লভ। সমীর নিরলসভাবে কাজ করে এ দুটি রোগের তথ্যউপাত্ত সরবরাহ করে স্বাস্থ্য খাতের সরকারি নীতিনির্ধারকদের এই ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা সম্পর্কে বোঝাতে সক্ষম হন। এর ফলে হাজার হাজার মৃত্যু রোধ করা সম্ভব হয়েছে।

মেয়েকে জীববিজ্ঞানে উদ্বুদ্ধ করার পেছনে ড. সমীরের ভূমিকার কথা উল্লেখ করে বিল গেটস লিখেছেন, সমীর সাহার পরিবারে রাতের খাবার টেবিলে ব্যাকটেরিয়া, ভাইরাস ও সংক্রামক রোগ নিয়ে আলোচনা গুরুত্ব পেত। ড. সমীর তার বৈজ্ঞানিক লেকচারের বিষয় কিংবা বাংলাদেশের স্বাস্থ্য সমস্যার চ্যালেঞ্জ নিয়ে তিনি যা শিখেছেন তা শেয়ার করতেন। সমীরের স্ত্রীও একজন জীববিজ্ঞানী। ছোট্ট সেঁজুতির মনে সেই আলোচনা প্রভাব ফেলে। পরবর্তী সময়ে তিনিও মাইক্রোবায়োলজি বিষয়ে পড়তে আগ্রহী হন। সেঁজুতি এখন তার বাবার সঙ্গে চাইল্ড হেলথ রিসার্চ ফাউন্ডেশনে (সিএইচআরএফ) কাজ করেন। প্রতিষ্ঠানটি বাংলাদেশ ও অন্যান্য দেশে শিশুমৃত্যুর হার কমাতে সহায়তা করছে। দরিদ্র দেশগুলোতে নবজাতক ও শিশুদের রহস্যময় অসুস্থতার কারণ নির্ধারণে সহজ পন্থা উদ্ভাবন করেছেন সেঁজুতি।

বিল গেটস লিখেছেন, ২০১৭ সালে বাংলাদেশে শিশুদের মধ্যে মেনিনজাইটিস ছড়িয়ে পড়লে সেঁজুতি শিশুদের জেনেটিক বিশ্নেষণের মাধ্যমে সে রহস্য উদ্‌ঘাটন করেন। দেখা যায়, মশাবাহিত চিকুনগুনিয়ার মাধ্যমে মেনিনজাইটিস ছড়িয়ে পড়ে। তবে রহস্যের গভীরে যেতে তিনি নমুনা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে ছুটে যান পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য। এর পর তিনি বাংলাদেশে মেনিনজাইটিস ও অন্যান্য প্রাণঘাতী রোগ ছড়িয়ে পড়া রোধে একটি স্বল্প ব্যয়সাপেক্ষ ডায়াগনস্টিক যন্ত্র বসান। তার এই গবেষণা বাংলাদেশে চমৎকারভাবে কাজে লেগেছে। এ গবেষণার মাধ্যমে সরকার সবচেয়ে কার্যকর পন্থায় রোগ নিয়ন্ত্রণ করতে সক্ষম হবে। এটা নতুন ভ্যাকসিন তৈরিতেও সহায়ক হবে।

বাংলাদেশের অবস্থার উন্নতি হলেও দেশটিকে আরও অনেক দূর যেতে হবে বলে মনে করেন মাইক্রোসফটের এই প্রতিষ্ঠাতা। তার প্রতিষ্ঠানে বাংলাদেশ থেকে গোলকিপার হিসেবে সেঁজুতিকে বাছাই করা হয়েছে। সেই গোলকিপার অনুষ্ঠানে সেঁজুতি সাহার দেওয়া বক্তব্য উল্লেখ করে গেটস লিখেন, সেঁজুতি বলেছেন; বাংলাদেশের স্বাস্থ্য খাতে এখনও অনেক চ্যালেঞ্জ রয়ে গেছে। দেশের বৃহত্তম শিশু সেবাকেন্দ্র ঢাকা শিশু হাসপাতাল থেকে প্রতি বছর ৬ হাজার শিশুকে ভর্তি ছাড়াই ফেরত পাঠাতে হচ্ছে। এ কারণ ৬৬৫টি শয্যার এই হাসপাতালটি সব সসয় রোগী দ্বারা পরিপূর্ণ থাকে। জরুরি চিকিৎসা প্রয়োজন এমন অনেক শিশুকে ফেরত যেতে হয়।

অধ্যাপক সমীর ও তার মেয়ে সেঁজুতির কাজের ফলে বাংলাদেশে ভবিষ্যতে সংক্রামক রোগীর সংখ্যা কমবে এবং হাসপাতালে শয্যা সংখ্যাও বাড়বে বলে প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন বিল গেটস।

অধ্যাপক সমীর সাহা সমকালকে বলেন, বিল গেটস তার ব্লগে যেসব প্রশংসাসূচক বক্তব্য লিখেছেন, তা অত্যন্ত উৎসাহব্যঞ্জক। দেশের সব মানুষ এ প্রশংসার অংশীদার। এ ধরনের বক্তব্য ভালো কাজের স্বীকৃতি। যে কোনো মানুষকে আরও ভালো কাজে উৎসাহী করে তুলবে। দেশের মানুষের স্বাস্থ্যমান উন্নয়নে আমৃত্যু কাজ করে যাবেন বলেও জানান তিনি।

 

আরও পড়ুনঃ সৌদি আরবে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার বাংলাদেশি তরুণী

আরও পড়ুনঃ যুক্তরাষ্ট্রের নদী থেকে বাংলাদেশি চিকিৎসকের মরদেহ উদ্ধার

আরও পড়ুনঃ ৩০০ কোটি টাকা মেরে কানাডায়

আরও পড়ুনঃ ইউনিসেফ নির্বাহী বোর্ডের প্রেসিডেন্ট হলেন রাবাব ফাতিমা

আরও পড়ুনঃ মোদির আমন্ত্রণে ভারতে আসছেন ট্রাম্প!

আরও পড়ুনঃ রোমহর্ষক: নবজাতক শিশুকে কামড়ে খেল কুকুর!

আরও পড়ুনঃ ‘হোটেল রোজ ভ্যালিতে বসে হামলার পরিকল্পনা করে ৭ জন’

আরও পড়ুনঃ বাসে ঘুমিয়ে ২১ বছর!

আরও পড়ুনঃ নীল নদের মালিক কে?

আরও পড়ুনঃ ‘সুখ’ বুঝতে ৯ মিলিয়ন ডলার দান!

আরও পড়ুনঃ পরিচালকের রুম থেকে বেরিয়ে অঝোরে কাঁদলেন নায়িকা

আরও পড়ুনঃ নিউইয়র্কের হোটেলে বাংলাদেশি তরুণীর মৃত্যু

আরও পড়ুনঃ বাণিজ্যিক উদ্দেশে মুজিববর্ষের লোগো ব্যবহার করা যাবে না

আরও পড়ুনঃ বাংলাদেশের বিরুদ্ধে অ্যামনেস্টির ভয়ানক ষড়যন্ত্র!

দেশ-বিদেশের টাটকা খবর আর অন্যান্য সংবাদপত্র পড়তে হলে cbna24.com 

সুন্দর সুন্দর ভিডিও দেখতে হলে প্লিজ আমাদের চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

Facebook Comments

cbna

cbna24 5th anniversary small

cbna24 youtube

cbna24 youtube subscription sidebar

Restaurant Job

labelle ads

Moushumi Chatterji

moushumi chatterji appoinment
bangla font converter

Sidebar Google Ads

error: Content is protected !!