প্রবাসের সংবাদ

ওয়াশিংটন ডিসিতে বাংলাদেশ দূতাবাসের স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্থনি ব্লিংকেনের শুভেচ্ছা বার্তা

ওয়াশিংটন ডিসিতে বাংলাদেশ দূতাবাসের স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন

দূতাবাস প্রেরীত সংবাদ/২৬ মার্চ।  যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন ডিসিতে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাস যথাযোগ্য মর্যাদা ও উৎসাহের সাথে বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী ও জাতীয় দিবস উদযাপন করেছে। দিবসের অনুষ্ঠানের শুরুতে যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এম শহিদুল ইসলাম প্রধান অতিথি যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মণ্ত্রণালয়ের দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়া বিষয়ক মুখ্য উপ-সহকারী সচিব আরভিন মাসিংগাকে সংগে নিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন। এরপর রাষ্ট্রদূত এবং প্রধান অতিথি দূতাবাসে অবস্থিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আবক্ষ ভাস্কর্যে শ্রদ্ধার্ঘ্য নিবেদন করেন। বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রর জাতীয় সংগীত বাজানোর পরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একটি ভিডিও বার্তা প্রদর্শিত হয়। এরপরে রাষ্ট্রদূত এবং প্রধান অতিথি বক্তব্য প্রদান করেন।

রাষ্ট্রদূত শহীদুল ইসলাম স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং স্বাধীনতার জন্য জীবন উৎসর্গকারী বীর মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। তিনি মিয়ানমারের নিপীড়িত রোহিঙ্গা জনগণের প্রতি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মানবিক সহায়তা জন্য যুক্তরাষ্ট্রের প্রশংসা প্রকাশ করেন। তিনি সমগ্র ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলের জন্য নিরাপত্তা হুমকিতে পরিণত হওয়ার আগে প্রলম্বিত রোহিঙ্গা সঙ্কটের একটি স্থায়ী সমাধানে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে নেতৃত্ব প্রদানের জন্য যুক্তরাষ্ট্রকে আহ্বান জানান।

মুখ্য উপ-সহকারী সচিব, আরভিন ম্যাসিঙ্গা বাংলাদেশ সরকার ও জনগণকে শুভেচ্ছা জানান। তিনি বলেন যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলে একটি গুরুত্বপূর্ণ অর্থনৈতিক অংশীদার হিসাবে বাংলাদেশকে দেখছে। তিনি আরও বলেন, “জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় বাংলাদেশ একটি শীর্ষস্থানীয় কণ্ঠস্বর হিসাবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছে। তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন যে বাংলাদেশের এই নেতৃত্ব একটি সফল জাতিসংঘ জলবায়ু সম্মেলন (কপ–২৬) অনুষ্ঠানে অবদান রাখবে ।”

অপরাহ্ণে অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় অংশে রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডক্টর এ কে আব্দুল মোমেন এবং পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো:  শাহরিয়ার আলম কর্তৃক প্রদত্ত বাণী পাঠ করা হয়। এরপর দূতাবাস পরিবারের সদস্যদের পরিবেশনায় একটি মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে দিনের কর্মসূচী সমাপ্ত হয়।

বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী এবং ৫০তম জাতীয় দিবসে শুভেচছা জানিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় একটি প্রেস বিবৃতি প্রদান করেছে। বিবৃতিতে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ব্লিংকেন বলেন “একটি নিরাপদ ও সুরক্ষিত অঞ্চল প্রতিষ্ঠা এবং একটি সুস্থ ও সমৃদ্ধ ভবিষ্যতের জন্য আমরা একসাথে কাজ করার ক্ষেত্রে বৈশ্বিক উন্নয়নে বাংলাদেশ যে উল্লেখযোগ্য অবদান রেখেছে তা অনস্বীকার্য।”

এর আগে মার্কিন রাষ্ট্রপতি জো বাইডেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন বার্তা প্রেরণ করেছেন। শুভেচ্ছা বার্তায় বাইডেন বলেন যে দশ লক্ষ রোহিঙ্গাকে আশ্রয় প্রদান করে বাংলাদেশ বিশ্বে মানবতা ও উদারতার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। তিনি আরও বলেন যে সংকটটির স্থায়ী সমাধানের জন্য যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের সাথে থাকবে ।

Bangladesh Embassy in Washington DC Celebrates 50th Anniversary of Independence and National Day 

 US President Biden and Secretary of State Bilken issue congratulatory messages

The Embassy of Bangladesh in Washington DC has celebrated the 50th Anniversary of Independence and National Day of Bangladesh with due respect and enthusiasm. At the beginning of the day’s program, Bangladesh Ambassador to the United States M. Shahidul Islam, along with the Guest of Honour, State Department’s Principal Deputy Assistant Secretary for South and Central Asian Affairs, Ervin Massinga, officially hoisted the national flag of Bangladesh. Later, the Ambassador and the Guest of Honour placed a floral wreath at the bust of the Father of the Nation, Bangabandhu Sheikh Mujibur Rahman. After playing of the national anthems of Bangladesh and the United States, a video message by the Prime Minister Shaikh Hasina was screened. Afterward, the Ambassador and the Guest of Honour delivered their speeches.

Ambassador Shahidul Islam paid deep homage to the architect of independent Bangladesh, Bangabandhu Sheikh Mujibur Rahman, and to the valiant freedom fighters who gave their lives for the cause of Independence. He expressed deep appreciation for the sustained humanitarian assistance and political support of the United States to the persecuted Rohingya population of Myanmar. He urged the United States to lead the international community to find a durable solution to the long-standing Rohingya crisis before it becomes a security threat for the entire Indo-Pacific region.

Principal Deputy Assistant Secretary, Ervin Massinga extended greeting to the government and people of Bangladesh. He said that the USA sees Bangladesh as an important economic and security partner in the Indo Pacific. He added, “Bangladesh has established itself as a leading voice on how climate change solutions must protect the most vulnerable. This leadership will contribute to a successful COP26.”

In the second part of the program, the messages from President Md Abdul Hamid, Prime Minister Sheikh Hasina, Foreign Minister Dr. A.K. Abdul Momen, and State Minister for Foreign Affairs Md Shahriar Alam were read out. The day’s program ended with a pleasant cultural program participated by the members of the Embassy family.

On this auspicious occasion, the US Secretary of State Anthony Blinken has issued a Press Statement congratulating the people of Bangladesh. “As we work together toward a safe and secure region and a healthy and prosperous future, we recognize the remarkable contributions Bangladesh has made to global development,” Blinken said in the statement.

Earlier, the US President Joe Biden sent a congratulatory message to Prime Minister Sheikh Hasina. Biden said that Bangladesh’s hosting of one million Rohingyas is an example to the world of humanity and generosity. He also said that the United States would continue to be a steadfast partner in finding a durable solution to the crisis.


সর্বশেষ সংবাদ

দেশ-বিদেশের টাটকা খবর আর অন্যান্য সংবাদপত্র পড়তে হলে CBNA24.com

সুন্দর সুন্দর ভিডিও দেখতে হলে প্লিজ আমাদের চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

আমাদের ফেসবুক পেজ   https://www.facebook.com/deshdiganta.cbna24 লাইক দিন এবং অভিমত জানান

 

আপনার মতামত দিন