সাহিত্য ও কবিতা

ভালোবেসে কার্পণ্য শিখিনি  |||| শর্মিলী শর্মি


ভালোবেসে কার্পণ্য শিখিনি  |||| শর্মিলী শর্মি

বহুগামীদের বৃত্তে কখনোই তোমাকে জিজ্ঞেস করবো না আমি তোমার কাছে একশো জনের মধ্যে একজন ক্যানো!
কিন্তু তুমি ছিলে আমার কাছে একশো জনের মধ্যে একজন।
ক্যানো রোদের মতো হাসলে না
এই প্রশ্ন আমি কখনো তোমাকে করবো না!
কখনো’ই জানতে চাইবো না ক্যানো আমায় ভালোবাসলে না।
ফুরিয়ে যাওয়া ওয়াইনের বোতলের মতো নিজেকে ছুঁড়ে ফেলা আমার পুষিয়ে গেছে।
আমি জানি আমার সাথে থাকা যায়,আমার সঙ্গ পেতে তীর্থের কাকের মতো যুগ যুগ চেয়ে থাকা যায়,আমাকে ছোঁয়ার লালসায় মগ্ন থাকা যায়।
ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য আমাকে সোনায় সোহাগী করা যায়,
মিথ্যা অভিনয় দিয়ে আমার সরল তনু মনু মনটাকে ঠকানো যায়!
দিনশেষে আমাকে ভালোবাসা যায় না।
বহুবছর আমাকে যত্ন করে বুকের ভেতর আগলে রাখা যায় না!

তবুও বলছি কেউ যদি তোমাকে ভালোবাসতে চায়
বাসুক না, আমি বাঁধা দেবো না।
কেউ যদি তোমাকে ভেবে আস্ত কয়েকটা রাত কাটায়,
আমি কিচ্ছু বলবো না।

যদি কোন প্রেমিকার
উদ্যতপরায়ন ঠোঁট
স্পর্শ করে তোমার ঠোঁট
যদি কোন বলিষ্ঠ হাত
অসম্ভব আবেগে
তোমায় আলিঙ্গন করে…
আমি আত্মতৃপ্তি নিয়ে বলবো
ভালো হয়েছে।

ধবধবে সাদা কাগজে যদি তোমাকে নিয়ে কেউ কবিতা লিখে,
আমি বরং আগ্রহ নিয়েই পড়ে দেখবো।

যদি ঠিক আমার পাশ দিয়ে
কোন প্রেমিকার হাত ধরে হেটে যাও
আবেগ দিয়ে তার হাতটা শক্ত করে চেপে ধরে রাখো,
তবুও আমি দেখবো।

যদি অন্য কোন মানুষীর অঙ্গে  তোমার বাঁশি বেঁজে উঠে আমি বরং নীরবে নিভৃতে চেয়ে শুনবো।

ভালোবেসে ঠকেছি
ভালোবেসে কার্পণ্য শিখিনি… ।


আপনার মন্তব্য লিখুন