অবিশ্বাস্য হলেও সত্য

টাকা জীবাণুমুক্ত করতে মাইক্রোওয়েভে! অতঃপর..

টাকা জীবাণুমুক্ত করতে মাইক্রোওয়েভে! অতঃপর..
ছবি : সংগৃহীত

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে দিন দিন মৃতের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। সেইসঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যাও। তবে করোনাভাইরাস আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ার পর থেকেই অনেকেই নিজেদের মতো করে সতর্কতা অবলম্বন করছেন। কেউ শরীর ঢাকা পোশাক পরে রাস্তায় বের হচ্ছেন, তো কেউ নিজের গোটা ঘরকেই মুড়ে ফেলছেন প্লাস্টিকের মোড়কে।

কিন্তু সম্প্রতি চীনের এক নারী যা করেছেন তা বোধহয় ছাপিয়ে গেছে সব কিছুকেই। নোটের মাধ্যমে যাতে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ছড়িয়ে না পড়ে, সে জন্য ওই নারী নোট জীবাণুমুক্ত করতে চেয়েছিলেন। সেই কাজ করতে গিয়ে তিনি পুড়িয়ে ফেলেছেন ৩ হাজার চায়না ইউয়ান, যা বাংলাদেশি মুদ্রায় সাড়ে ৩৬ হাজার টাকারও বেশি।

চীনের এক সংবাদপত্রে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, ওই নারীর নাম আন্ট লি। তিনি থাকেন চীনের জিয়াংশু প্রদেশের জিয়াংয়িন প্রদেশে।

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলোর খবরে বলা হয়, চীনের সিআইটিআইসি ব্যাঙ্কের শাখা থেকে নোটগুলি তুলে এনেছিলেন আন্ট লি। তারপরই তা জীবাণুমুক্ত করতে মাইক্রোওয়েভে ভরেছিলেন তিনি। তবে এক মিনিটের মধ্যেই নোটগুলো জ্বলতে শুরু করে এবং কালো হয়ে যায়।

পরে ওই নারী নোটগুলো চীনের সিআইটিআইসি ব্যাংকের শাখায় নিয়ে গেলেন, যেখানে তাকে বলা হয়েছিল যে নোটগুলো পুনরুদ্ধার করা যাবে না বলে জানিয়েছে সিনা ফিনান্স নামে একটি সংবাদমাধ্যম। যাহোক, ব্যাংকটি অল্প পরিমাণে নোট ফেরত দিতে সক্ষম হয়েছিল।

চীন সিআইটিআইসি ব্যাংকের একজন মুখপাত্র সিনা ফিনান্সকে বলেছিলেন, ব্যাংকগুলো প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করায় আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে প্রাপ্ত অর্থ পরিষ্কারই ছিল।

এর আগে গত মাসে চীনের কেন্দ্রীয় ব্যাংক একটি সংবাদ সম্মেলনে স্পষ্ট করে জানিয়েছে যে ব্যাংকগুলো মুদ্রা জীবাণুমুক্ত করতে অতিবেগুনি রশ্মি ব্যবহার করেছে।

আরও পড়ুনঃ

সর্বশেষ সংবাদ     
কানাডার সংবাদ
দেশ-বিদেশের টাটকা খবর আর অন্যান্য সংবাদপত্র পড়তে হলে cbna24.com
সুন্দর সুন্দর ভিডিও দেখতে হলে প্লিজ আমাদের চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

cbna24-7th-anniversary
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.

7 + seventeen =